> ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধ। তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু। কার সামারিক শক্তি বেশী। Iran vs Pakistan

ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধ। তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু। কার সামারিক শক্তি বেশী। Iran vs Pakistan

ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধ। তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু। কার সামারিক শক্তি বেশী। Iran vs Pakistan

হামাস-ইসরাইল যুদ্ধের মাঝেই দক্ষিন এশিয়ার দুই প্রতিবেশী দেশে ইরান ও পাকিস্তানের মাঝে সামরিক উত্তেজনা চরমে। ১৬ জানুয়ারী ইরান অনেকটাই অবিশ্বাস্য ভাবে পাকিস্তানে সামরিক হামলা চালায় যা বিগত ১২ বছরের ধরে চলা সীমান্ত সংঘাত কে আরো উসকে দিল। একদিকে গাজা-ইসরাইল সংঘাত অন্যদিকে ইরান-পাকিস্তান উত্তেজনা। বিশ্বে আরো একটি যুদ্ধের আশংকা।

পাকিস্তানে ইরানের হামলা

জাইশ জঙ্গী গোষ্ঠীর আস্তায় হামলা চালাই ইরান। দীর্ঘ দিন ধরে একে অপরের বিরুদ্ধে জঙ্গীদের উসকে দেওয়ার অভিযোগ করে আসছে। তবে কোন দেশ কখনই  এক অপরের বিরুদ্ধে সামরিক কোন পদক্ষেপ নেয়নি। তবে ১৬ জানুয়ারী অনেকটা আচমকা ইরান ভারতের অভ্যান্তরে মিসাইল ও ড্রোন হামলা চালাই। লক্ষ্য জাইশ জঙ্গী গোষ্ঠী। ইরানের দাবী কয়েক দফা ইসলামাবাদ কে সর্তক করা হলেও সন্ত্রাসবাদ দমনে পাকিস্তান কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। একপ্রকার বাধ্য হয়েই এ হামলা পরিচালনা করা হয়েছে।

ইরানের দাবী জাইশ জঙ্গী গোষ্ঠীকে বিভিন্ন ভাবে সহায়তা করে আসছে  ইসরাইল ও পশ্চিমারা। গত সপ্তাহে কাসেম সোলাইমানীর মৃত্যু বার্ষিকীতে জোড়া হামলার ঘটনায় জাইশ জঙ্গী গোষ্ঠীকে দায়ী করছে তেহরান। পাকিস্তানে হামলার কয়েকদিন আগে ইরান একযোগে ইরাক ও সিরিয়ায় হামলায় চালাই। ইরাকে মোসাদ ও সিরিয়ায় আইএসের সদর দফতর কেন্দ্র করে হামলা চালানো হয়। হামলায় মোসাদের সদর দফতর পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে।

ইরানে পাকিস্তনের হামলা

ইরানের হামলার প্রতিক্রিয়ায় পাল্টা হামলা চালিয়েছে ইসলামাবাদ। মাত্র ৪৮ ঘন্টার কম সময়ে ইসলামাবাদ ইরানের সিস্তান ও বেলুচিস্তানের বিভিন্ন লক্ষ্য বস্তুতে হামলা চালিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ইসলামাবাদ। ইসলামাবাদের দাবী ইরানের সিস্তান ও বেলুচিস্তানে সন্ত্রাসবাদের আস্তানা কেন্দ্র করে এ হামলা চালানো হয়েছে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এ হামলা পরিচালনা করা হয়েছে। এতে ৫ জঙ্গী নিহত হয়েছে বলে নিশ্চিত করা হয়েছে।

ইরানের বিভিন্ন স্থানে পাকিস্তারে হামলা
ইরানের বিভিন্ন স্থানে পাকিস্তারে হামলা - সংগৃহীত

ইরান পাকিস্তানের হামলার কথা স্বীকার করেছে। এত ৭ জন নিহত হওয়ার কথা বলা হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয় নিহতরা ইরানের নাগরিক ছিলনা বলে নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে তারা কোন দেশের নাগরিক তা নিশ্চিত করেনি তেহরান।

পাল্টা-পাল্টি হামলার প্রতিক্রিয়া

সামরিক দিক থেকে শক্তিশালী দেশের মধ্যে সংঘাতে প্রতিক্রিয়া যে শক্তিশালী হবে তা অনেকটা অনুমেয় ছিল। ঘটলই তা ৪৮ ঘন্টার কম সময়েই পাল্টা হামলা পরিচালনা করেছে পাকিস্তান। ইরানের সিস্তান ও বেলুচিস্তানে এ হামলা চালানো হয়।

সিরিয়া-ইরাক-পাকিস্তানে ইরানের মিসাইল হামলা- রয়টার্স
সিরিয়া-ইরাক-পাকিস্তানে ইরানের মিসাইল হামলা- রয়টার্স

এ হামলার প্রতিক্রিয়া হিসেবে পাল্টা হামলা করেই খ্যান্ত হয়নি পাকিস্তান। ইরানের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার ও দেশ ত্যাগে বাধা দিয়েছে এবং ইরানে নিযুক্ত পাকিস্তানী রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করেছে ইসলামাবাদ। এ সপ্তাহের শুরুতেই ইরা্ক ও সিরিয়ায় সামরিক হামলা চালাই তেহরান।

কয়েকটি গনমাধ্যমের বরাতে বলা হচ্ছে ইসলামাবাদে ইরানের হামলা চালানো সিনেমার ট্রেইলর মাত্র পিকচার আব বাকি। পশ্চিমাদের কঠিন বার্তা দিতে তেহরান পাকিস্তানে হামলা চালাই বলে অনেক রাজনৈতিক বিশ্লেষন মনে করেছেন। গাজা-ইসরাইল, ইউক্রেন-রাশিয়া, আমেরিকা-ইয়েমেন-ইসরাইল সবর্ত্র যুদ্ধের দামামা।

যুদ্ধ-যুদ্ধ খেলা মানেই সামরিক শক্তি প্রদর্শন। ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধে কে জয়ী হবে? আদতেই কি যুদ্ধ শুরু হবে ইরান-পাকিস্তানের মধ্যে? ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধ শুরু হলে লাভবান হবে কে? ইত্যাদি নান প্রশ্ন এখন সামনে চলে আসছে। আপনার কাছে কি মনে হয় এসকল প্রশ্নে উত্তরে। কমেন্ট করে জানাবেন।

ইরান-পাকিস্তান যুদ্ধ

পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞায় জর্জরিত ইরান এবং অভ্যান্তীর দ্বন্দে বিপর্যস্ত পাকিস্তান কার সামরিক শক্তি এবং সক্ষমতা কেমন। যদি ‍যুদ্ধ শুরু হয়েই যায় তাহলে কোন দেশের জয়লাভ করার সম্ভাবনা বেশী। চলুন জেনে নেই ইরান পাকিস্তান কার সামরিক শক্তি কেমন।

বিশ্বে সামরিক শক্তির বিচারে ইরান ও পাকিস্তানে মধ্যে খুব বেশী পার্থক্য নেই। পাকিস্তানের বৈশ্বিক অবস্থান ৯ম এবং ইরানের অবস্থান ১৪ তম। এবার আসা যাক সামরিক বাজেট বিবেচনায় ইরান ঢের এগিয়ে। পাকিস্তানের সামরিক বাজেট ৬.৫০ বিলিয়ন ডলার এবং ইরানের সামরিক বাজেট প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার।

সামরিক বিশেজ্ঞদের মতে এবার যদি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয় তাহলে তা হবে পারমানবিক যুদ্ধ। দক্ষিণ এশিয়ার দুই পরাশক্তির মধ্যে পারমানবিক অস্ত্রের ক্ষেত্রে যোজন যোজন এগিয়ে পাকিস্তান। পাকিস্তানের রয়েছে ১৬৬ টির বেশী পারমানবিক অস্ত্র অপরদিকে ইরানের দাবী তারা পারমানবিক শক্তি নিয়ে গবেষনা চালিয়ে যাচ্ছে।

সামরিক সূচক বিবেচনায় ইরান-পাকিস্তান কাউকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। চলুন জেনে নেই সামরিক জনবল, বিমান, ট্যাংক, যুদ্ধ জাহাজ, সাবমেরিন ইত্যাদি বিষয়ে কোন কোন ক্ষেত্রে ইরান আবার কোন ক্ষেত্রে পাকিস্তান এগিয়ে। চলুন জেনে নেই সামরিক শক্তির আদ্যোপান্ত।

ইরানের সামরিক সক্ষমতা

সামরিক জনবল : ১১৮০০০০
সক্রিয় সামরিক জনবল: ৬১০০০০
সংরক্ষিত সামরিক জনবল: ৩৫০০০০
ট্যাংক: ১৯৯৮
যুদ্ধযান: ৬৫৮৬৫
পদাতিক যানবাহন (IVR): ৮৯৭২
সাঁজোয়া যান : ২৪৬০
অ্যাম্বুশ প্রতিরোধী যান: ৭৫০
আর্টিলারী: ৫৯০
ফিল্ড আর্টিলারী: ২১০০
রকেট প্রজেক্ট: ৮৫০
সামরিক জনবল (বিমান): ৪৩০০০
কম্ব্যাট যুদ্ধযান: ২৩০
ফাইটার যুদ্ধবিমান: ১৮৬
মাল্টি রোল বিমান: ২৫
আক্রমণ বিমান: ৬৭
স্পেশাল মিশন বিমান: ১৫
যুদ্ধ প্রশিক্ষন বিমান: ১২০
বোমারু বিমান: ০০
ইলেকট্রিক বিমান: ০০
সামরিক পরিবহন বিমান: ৮৬
হেলিকপ্টার: ১২৯
আক্রমণ হেলিকপ্টার : ১৫
স্বয়ংক্রিয় বিমান: ২০০০+
বিমানবন্দর: ৩১৯
সামরিক জনবল (নৌ): ১৮৫৫০
নৌবহর: ১০১
বিমান বহনকারী জাহাজ: ০০
হেলিকপ্টার বহনকারী জাহাজ: ০০
যুদ্ধজাহাজ : ৭
ছোট যুদ্ধজাহাজ : ৩
ডেস্ট্রয়ার: ০০
সাবমেরিন: ১৯
প্যাট্রল ভেসেল: ২১

পাকিস্তানের সামরিক সক্ষমতা

সামরিক জনবল : ১৭০৪০০০
সক্রিয় সামরিক জনবল: ৬৫৪০০০
সংরক্ষিত সামরিক জনবল: ৫৫০০০০
ট্যাংক: ৩৮১২
যুদ্ধযান: ৫০৮৬৫
পদাতিক যানবাহন (IVR): ৬৭৩২
সাঁজোয়া যান : ১৫৩০
অ্যাম্বুশ প্রতিরোধী যান: ৪৫০
আর্টিলারী: ৭৮০
ফিল্ড আর্টিলারী: ৩২০০
রকেট প্রজেক্ট: ৭০২
সামরিক জনবল (বিমান): ৭৯০১২
কম্ব্যাট যুদ্ধযান: ৪৮০
ফাইটার যুদ্ধবিমান: ৩৮৭
মাল্টি রোল বিমান: ৩৩১
আক্রমণ বিমান: ১০৩
স্পেশাল মিশন বিমান: ২৫
যুদ্ধ প্রশিক্ষন বিমান: ৫৫০
বোমারু বিমান: ০০
ইলেকট্রিক বিমান: ০৩
সামরিক পরিবহন বিমান: ৬০
হেলিকপ্টার: ৩৫০
আক্রমণ হেলিকপ্টার : ৬০
স্বয়ংক্রিয় বিমান: ৫০০+
বিমানবন্দর: ১৫১
সামরিক জনবল (নৌ): ১২৪৫৫০
নৌবহর: ১১৪
বিমান বহনকারী জাহাজ: ০০
হেলিকপ্টার বহনকারী জাহাজ: ০০
যুদ্ধজাহাজ : ৯
ছোট যুদ্ধজাহাজ : ৭
ডেস্ট্রয়ার: ০২
সাবমেরিন: ০৮
প্যাট্রল ভেসেল: ৬৯

সামরিক শক্তি বিচারে ইরান ও পাকিস্তান সমশক্তির বলা যায়। এই উত্তেজানার মাঝেই আমেরিকা আবার হৃতিদের উপর বিমান হামলা চালিয়েছে। হৃতি বিদ্রোহীরা ৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া হাসাস-ইসরাইলে যুদ্ধে হামাসের সমর্থনে ইসরাইলের বিভিন্ন লক্ষ্য বস্তুতে হামলা চালিয়ে আসছে। ইরান-পাকিস্তান উত্তেজনা থামাতে চীন ‍উভয় পক্ষকেই সমযত থাকার আহ্বান জানিয়েছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.