> চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ২ মার্চ , আবেদন করবেন যেভাবে

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ২ মার্চ , আবেদন করবেন যেভাবে

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় আগামী ২ মার্চ থেকে ২০২৩-২৪ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে গতবারের মত এবারও দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ থাকছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ৫ মার্চ থেকে শুরু, থাকছে দ্বিতীয়াবার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ২০২৩-২৪

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন  জানুয়ারী’২৪ এর শুরু হবে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে আগামী ২ মার্চ থেকে ১০ মার্চ পর্যন্ত ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবাসইটে পাওয়া যাবে।


চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গতবছর ২০২২-২৩ সেশনের অনার্স ১ম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়। ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় সময় ছিল ১ ঘন্টা। সকল বিজ্ঞান, কলা ও মানবিক ও বিজনেস স্টাডিজ ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ - চার ইউনিটে ভাগ করে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতিবছর চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ৪৮ টি বিভাগে এবং ৬ টি ইনিস্টিটিউট এ সর্বমোট ৪ হাজার ৯২৬ টি আসনে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করে থাকে। সাধারণ আসনে ৪ হাজার ১৮৯ টি এবং কোটার অধীন ৭৩৭ টি আসন।
চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সার্কুলার-১

চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার পদ্ধতি

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় মোট ১২০ নম্বরের এর মাধ্যে ১০০ মার্ক এর এমসিকিউ এবং বাকি ২০ মার্ক মাধ্যমিক বা দাখিল এবং উচ্চমাধ্যমিক বা আলিম পরীক্ষার প্রাপ্ত জিপিএ এর উপর নির্ভর করে । চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর ভর্তি পরীক্ষার পাস মার্ক হলো ৪০ (40) । 

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সময় শিক্ষার্থীর ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নাম্বারের সাথে জিপিএ এর নাম্বার যোগ করে ফলাফল বা মেধাতালিকা প্রকাশ করে। উল্লেখ্য কোটায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবারও আলাদা মেধাতালিকা প্রকাশ করা করবে।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার ইউনিট বিভাজন

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতি বছর চারটি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার আয়োজন করে থাকে। ইউনিট চারটি হলো A, B, C এবং D। ৪৮ টি বিভাগ ও ৬ টি অনুষদে ৪ হাজার ৯২৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারে।
  • A ইউনিটঃ বিজ্ঞান অনুষদ, জীববিজ্ঞান অনুষদ, কৃষি অনুষদ, ফার্মেসি অনুষদ , ভূ বিজ্ঞান ও ফিসারিজ অনুষদ এবং এর অন্তর্ভুক্ত সকল বিভাগ ও ইনস্টিটিউট।
  • B ইউনিটঃ কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের সকল বিভাগ / ইনস্টিটিউট
  • C ইউনিটঃ ব্যাবসা অনুষদের সকল বিভাগ ( বিবিএ, আইবিএ)
  • D ইউনিটঃ সমাজিক বিজ্ঞান বিভাগের সকল বিভাগ, ইনস্টিটিউট, কলা অনুষদের সকল বিভাগ ও ইনস্টিটিউট, চারুকলা অনুষদের সকল বিভাগ ও ইনস্টিটিউট এবং শিক্ষা ইনস্টিটিউট এর অন্তর্ভুক্ত সকল বিভাগ ও ইনস্টিটিউট সমূহ ।

২০২৩-২৪ সেশনে ভর্তি পরীক্ষার সম্ভাব্য তারিখঃ

ইউনিট তারিখ সময়
বসকল বিজ্ঞান ও জীববিজ্ঞান বিভাগ / ইনস্টিটিউট (এ ইউনিট) মার্চ -
কলা ও মানবিক অনুষদ (বি ইউনিট) মার্চ -
বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ (সি ইউনিট) মার্চ -
সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সমস্ত বিভাগে (ডি ইউনিট) মার্চ -
ভর্তি বিজ্ঞপ্তি আবেদন লিংক রেজাল্ট

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনের যোগ্যতা ২০২৪

একটি নির্দিষ্ট মান দন্ড পুরন করতে হয় যাকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রাথমিক যোগ্যতা বলা হয়। চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদনকারীকে অবশ্যই ২০২৩ অথবা ২০২২ সালে এইচএসসি/আলিম বা সমমান এবং ২০২০ অথবা ২০২১ সালে এসএসসি/দাখিল বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের জন্য গড় পয়েন্ট প্রয়োজন হয় ৮.০০ ( বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ৮.২৫)।  এছাড়াও চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এ সেকেন্ড টাইম ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ রয়েছে।


চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আবেদনের তারিখ ২০২৪

চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ২০২৪ এর আবেদনের তারিখ প্রকাশ করেছে । এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (অর্নাস) বর্ষের ভর্তির আবেদন ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাসে শুরু হবে।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন পদ্ধতি ও ফি

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ২০২৪ এর আবেদন শুরু হবে আগামী বছর জানুয়ারী’২৪ থেকে। আবেদনকারীকে প্রথমে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার নিজস্ব ওয়েবসাইট https://admission.cu.ac.bd/ তে গিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিট সিলেক্ট বা নির্বাচন করে আবেদন সম্পন্ন করতে হবে। আবেদন করতে ক্লিক করুন

আবেদন প্রক্রিয়া শেষে ইউনিট প্রতি ৮৫০ টাকা ও সার্ভিস চার্জ বাবদ ১০০ টাকা মোবাইল ব্যাংকিং ‘রকেট’ বা বিকাশের এর মাধ্যমে জমা দেওয়া যাবে।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া-১

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া-২

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া-৩

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া-৪

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া-৫

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন ২০২৪

২০২৩-২৪ সেশনের মানবন্টন ও পরীক্ষা পদ্ধতি এখনও প্রকাশিক হয়নি । ধারনা করা হচ্ছে গত বছরের মত এ বছরও একই মান বন্টনে পরীক্ষা অনু্ষ্ঠিত হবে। 

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার মেধাতালিকা প্রকাশ ২০২৪

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা গ্রহণের ১ সপ্তাহ বা ১ মাসের মধ্যে ফলাফল (রেজাল্ট) প্রকাশ করে থাকে। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ওয়েবাইটে প্রকাশ করা হয়। ফলাফল দেখতে ভিজিট করুন: Click Here

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পদ্ধতি ২০২৪

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলাফল প্রকাশের পর নির্বাচিত প্রাথীদের ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়। ভর্তির জন নিবার্চিত প্রার্থীকে https://admission.cu.ac.bd ওয়বসাইেটর মাধেম HSC ও SSC বা সমমান পরীার Roll, Board, Year প্রদান করে ভর্তি ফরম পূরণ করেত পারেব। উল্লিখিত তথসমূহ সঠিকভাবে প্রদান করলে যে যে ইউনিটে ভর্তির জন্য নিবার্চিত হয়েছে তার তালিকা পাওয়া যাবে। যে ইউনিটে ভর্তি হতে ইচ্ছুক সে ইউনিটের ফরম পূরণ করতে হবে। ভর্তি কার্যক্রম সম্পূর্ন করতে ভিজিট করুন: Click Here

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিচিতিঃ

দেশের তৃতীয় বৃহত্তম বিশ্ববিদ্যালয় চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিক্ষাঙ্গনের দিক থেকে দেশের সর্ববৃহৎ বিশ্ববিদ্যালয়। এটি ১৯৬৬ সালে চট্রগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলায় প্রতিষ্ঠিত হয়। চট্রগ্রাম শহর থেকে ২২ কিলোমিটার উত্তরে ফতেহপুর ইউনিয়নের অবস্থিত। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে মোট ৬ টি অনুষদ রয়েছে। অনুষদ গুলো ৪৮ টি বিভাগে বিভক্ত। বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর গবেষণা বিভাগও রয়েছে।

চট্রগাম বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের চট্রগ্রাম বিভাগে অবস্থিত। চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় একটি সরকারী স্বায়ত্বশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়। চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রয়েছে ২১০০ একর সুবিশাল নিজ্স্ব ক্যাম্পাস। বর্তমানে চট্রগাম  বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ২৮ হাজার।


চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পরিচিতিঃ

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রায় ২১০০ একর এলাকা জুড়ে অবস্থিত। চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ৬টি অনুষদের অধীনে ৪৮টি বিভাগে বর্তমানে পরিচালিত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম৷ ক্যাম্পাসের রয়েছে মোট ১২ টি আবাসিক হল। যার মধ্যে ছাত্রদের জন্য ৮টি আবাসিক হল এবং চাত্রীদের জন্য রয়েছে ৪টি আবাসিক হল। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হোস্টেল রয়েছে।

ক্যাম্পাসে কয়েকটি ক্যাফেটেরিয়া আছে। যার মধ্যে অন্যতম চাকসু ক্যাফেটেরিয়া, আইটি ক্যাফেটেরিয়া অন্যতম। পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্ত জুড়ে রয়েছে শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আবাসিক এলাকা ৷ চাকসু ভাবণের তৃতীয় তলায় সাংবাদিক সমিতির অবস্থান।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রদত্ত ডিগ্রিসমূহঃ

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নিম্নলিখিত ডিগ্রিসমূহ প্রদান করা হয়। 
১. স্নাতক (অনার্স) ঃবিএ, বিএফএ, বিপিএ, বিএসসি, বিফার্ম, এলএলবি, বিবিএ, বিএসএস, বিএসসি এজি, বিএসসি ফিশারীজ,বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং, বিএসসি ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, বিএসসি ইন ফিজিওথেরাপি, বিএসসি ইন নার্সিং, বিএসসি ( পোস্ট বেসিক) নার্সিং/পাবলিল হেলথ নার্সিং, বিএসসি ইন মেডিকেল টেকনোলজি ( ল্যাবরেটরি/ডেন্টাল)।
২. স্নাতকোত্তর ঃএমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং, এম ইঞ্জিনিয়ারিং, এমএ, এমএফএ, এমপিএ, এমএসসি, এমফার্ম, এলএলএম, এমবিএ, এমএসএস, এমএস এজি, এমএস ফিশারীজ, এমপিএস।
৩. স্নাতক (চিকিৎসা) ঃএমবিবিএস, বিডিএস, ডিভিএম।
৪. স্নাতকোত্তর (চিকিৎসা) ঃএমফিল, এমএস, এমডি, এমপিএইচ, ডিপ্লোমা।
৫. উচ্চতরঃ এমফিল, পিএইচডি

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় অনুষদ পরিচিতিঃ

কলা ও মানববিদ্যা অনুষদঃ ১৯৬৬ সালে বাংলা, ইংরেজি, ইতিহাস ও দর্শন বিভাগের মাধ্যমে কলা অনুষদ তথা চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে কলা অনুষদে ১২টি বিভাগ রয়েছে।
বিজ্ঞান অনুষদঃ পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের মাধ্যমে ১৯৬৮ সালে বিজ্ঞান অনুষদের যাত্রা শুরু হয়। এই অনুষদে আসন সংখ্যা ১২০ টি।
প্রকৌশল অনুষদঃ চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীনতম অনুষদ এটি। ২০০১ সালে কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পাঠদানের উদ্দেশ্যে এ অনুষদের কার্যক্রম শুরু হয়।
ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদঃ বাণিজ্য বিষয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর শ্রেণীর পাঠদানের উদ্দেশ্যে ১৯৭০ সালে থেকে ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের কার্যক্রম শুরু হয়। এই বিভাগের আসন সংখ্যা ১৩০ জন।
সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত একটি অন্যতম অনুষদ। এই অনুষদে বর্তমানে নয়টি বিভাগের অধীনে বর্তমানে সর্বমোট ৭৫৮টি আসনে রয়েছে, যার মধ্যে মানবিক শাখার ৩২৩, বিজ্ঞান শাখা ২৬২ এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখার জন্য ১৭৩টি আসন নির্ধারিত রয়েছে।
আইন অনুষদঃ ১৯৯২ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর মাধ্যমে আইন শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। ১৯৯২-১৯৯৩ শিক্ষাবর্ষে মাত্র ৪ জন শিক্ষক এবং ৪৩ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে এই অনুষদে ২৭ জন শিক্ষক কর্মরত আছেন।
জীববিজ্ঞান অনুষদঃ ৯ টি বিভাগ নিয়ে জীব বিজ্ঞান সম্পর্কিত উচ্চতর পাঠদানের উদ্দেশ্যে এ বিভাগ প্রতিষ্ঠিত।
চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুষদঃ অধিভুক্ত বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারী মেডিকেল কলেজ, ডেন্টাল কলেজ, মেডিকেল ইন্সটিটিউট, নার্সিং কলেজ এই অনুষদের অন্তর্ভুক্ত। এই অনুষদের অন্তর্গত বেসরকারি মেডিকেল কলজের সংখ্যা ৮টি ও বেসরকারী মেডিকেল ইনস্টিটিউট সংখ্যা ১টি। এছাড়াও ৪টি বেসরকারী ইজ্ঞিনিয়ারিং কলেজ রয়েছে।
মেরিন সাইন্স ও ফিশারিজ অনুষদঃ বর্তমানে এ অনুষদে ২টি বিভাগ রয়েছে। ২০১৯ সালে এ অনুষদের যাত্রা শুরু হয়।

প্রিয় পাঠক, আজকে আমরা চট্র্গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানলাম। এছাড়াও ২০২৩-২৪ সেশনে ভর্তি সম্পকে জানলাম। আশা করছি আজকে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে প্রদেয় তথ্য আপনার অনেক উপকারে  আসবে।

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তথ্য সংক্রান্ত আপনাদের যেকোনো মতামত বা প্রশ্ন থাকলে আমাদের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। এরকম প্রয়োজনীয় আরও তথ্য পেতে নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করুন এবং গুগল নিউজে আমাদের পেজটিতে ফলো দিয়ে রাখুন। ধন্যবাদ।



আরো পড়ুনঃ 

To Know update information Follow TOHIDUR RAHMAN HASAN Google News, Twitter , Facebook, Telegram and Subscribe YouTube Channel

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ
* Please Don't Spam Here. All the Comments are Reviewed by Admin.